টেলিটক ব্যালেন্স চেক-ব্যালেন্স চেক

টেলিটক ব্যালেন্স চেক: টেলিটক ব্যবহারকারী সংখ্যা কম নয়। 2021 এর একটি সমীক্ষায় বলা হয়েছে টেলিটক বাংলাদেশের চতুর্থ বৃহৎ মোবাইল ফোন অপারেটর এবং প্রায় 62 লাখ মানুষ টেলিটক সিম ব্যবহার করে। তাই টেলিটক ব্যালেন্স চেক উপায় আমাদের জানা উচিত। আমরা অনেক সময় ব্যালেন্স চেক করতে পারি না। এ জন্য আজকের এই পোস্ট।

টেলিটক বাংলাদেশের বাংলাদেশ সরকার এর মালিকাধীন একটি নেটওয়ার্ক সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান। এর মোবাইল নেটওয়ার্ক সুন্দরবন, পার্বত্য দুর্গম অঞ্চলসহ দেশব্যাপী রয়েছে। টেলিটক বিভিন্ন ধরনের সেবা প্রদান করে। যেমন এসএমএস, ভয়েস এসএমএস, এসএমএস পুশ-পুল সার্ভিস, ফোনে কথা বলা, বিল প্রদান, মোবাইল টিভি, ভিডিও কল, সরকারি চাকরির ফি প্রদান, পাবলিক পরীক্ষার ফলাফল ব্যবস্থাপনা এবং ডাটা সার্ভিস, টেলিটিউন, টেলিচারজ,টেলিশপ, মিসড কল এলার্ট, কল ব্লক ইত্যাদি।

চলুন দেখে নেওয়া যাক টেলিটকের বিভিন্ন প্যাকেজ:

ইয়ুথ থ্রিজি
স্বাগতম
আগামী
বর্ণমালা
অপরাজিতা
মায়ের হাসি
শতবর্ষ প্যাকেজ

টেলিটক ব্যালেন্স চেক:

বিভিন্ন প্রয়োজনে আমাদের টেলিটক ব্যালেন্স চেক করার প্রয়োজন হয়। যেমন, আপনার মোবাইলে কত টাকা আছে তার উপর ভিত্তি করে আপনি নতুন করে টাকা লোড করতে পারেন। কিন্তু যদি আপনি না জানেন আপনার ব্যালেন্স কত, তাহলে আপনি টাকা লোড করতে পারবেন না। এজন্য আমাদের টেলিটক ব্যালেন্স জানা প্রয়োজন। কিন্তু আমরা অনেক সময় ব্যালেন্স চেক করতে পারি না। কারণ আমরা জানিনা কিভাবে চেক করতে হয়। তাই আজকে আমরা এর সম্পূর্ণ উপায় আপনাদের বলব।

আমরা কোড ব্যবহার করে খুব সহজে ব্যালেন্স চেক করতে পারি। এজন্য আমরা প্রথমে আমাদের হ্যান্ডসেটটি ডায়াল অপশনে যাব। এরপর ডায়াল করব *152#. কিছুক্ষণের মধ্যেই আমাদের হ্যান্ডসেটে একটি পপআপ উইন্ডো আসবে। যেখানে আপনি আপনার ব্যালেন্স জানতে পারবেন। অথবা একটি মেসেজ আসতে পারে যার মাধ্যমে আপনি ব্যালেন্স জানতে পারবেন।

টেলিটক ব্যালেন্স চেক

সুতরাং টেলিটক ব্যালেন্স চেক করার কোড হচ্ছে : *152#

সম্পূর্ণ প্রক্রিয়াটি নিম্নে বর্ণনা করা হলো:

প্রথমে আপনি আপনার মোবাইল ডিভাইসের ডায়াল অপশনে যান।
তারপরে যেই কোড *152# দেয়া হয়েছে তা ডায়াল করুন।
3 থেকে 4 সেকেন্ড অপেক্ষা করুন।
দেখবেন নতুন একটি উইন্ডো ওপেন হবে এবং সেখানে আপনার টেলিটক সিমের ব্যালেন্স প্রদর্শিত হবে।

টেলিটক সিমের ইন্টারনেট ব্যালেন্স চেক :

বর্তমানে আমাদের অধিকাংশ মানুষের স্মার্টফোন রয়েছে। স্মার্টফোনের মাধ্যমে খুব সহজে আমরা ইন্টারনেট কানেকশন দিতে পারি। এজন্য আমাদের ডাটা ক্রয় করা প্রয়োজন হয়। ইন্টারনেট ডাটা বিভিন্ন সিম অপারেটর প্রোভাইড করে। তেমনি টেলিটক অপারেটর বিভিন্ন মেয়াদ এবং প্যাকেজিং ডাটা অফার করে। বিভিন্ন সময়ে আমরা কতটুকু ডাটা খরচ করলাম তা জানা প্রয়োজন হয়। আবার অনেক সময় আমরা যদি ডাটা কতটুকু খরচ করলাম তা না জানি, তাহলে সম্পূর্ণ ডাটা খরচ হয়ে যেতে পারে। এরপরেও যদি আপনি ডাটা কানেকশন অফ না করেন তাহলে, আপনার মূল ব্যালেন্সে টাকা কাটা যেতে পারে। এর ফলে আমাদের চরম ভোগান্তিতে পড়তে হয়। এজন্য আমাদের টেলিটক ইন্টারনেট ব্যালেন্স চেক করা প্রয়োজন। তাই এখন আমরা জানবো কিভাবে টেলিটক ইন্টারনেট ব্যালেন্স চেক করা যায়।

টেলিটক ইন্টারনেট ব্যালেন্স চেক করার কোড হচ্ছে: *152#

সম্পূর্ণ প্রক্রিয়াটি নিম্নে বর্ণনা করা হলো:

প্রথমে আপনি আপনার মোবাইল ডিভাইসের ডায়াল অপশনে যান।
তারপরে যেই কোড *152# দেয়া হয়েছে তা ডায়াল করুন।
3 থেকে 4 সেকেন্ড অপেক্ষা করুন।
দেখবেন নতুন একটি উইন্ডো ওপেন হবে এবং সেখানে আপনার টেলিটক সিমের ইন্টারনেট ব্যালেন্স প্রদর্শিত হবে।

ব্যালেন্স চেক এর পাশাপাশি আমরা এখন আরো জানবো টেলিটক মিনিট ব্যালেন্স চেক এবং টেলিটক এসএমএস ব্যালেন্স চেক কিভাবে করতে হয়। আমরা অনেক সময় মিনিট কিনি। যেমন 10 টাকায় 20 মিনিট কিংবা 15 টাকায় 37 মিনিট। এমন অফার বিভিন্ন সিম কোম্পানি প্রোভাইড করে। তেমনি টেলিটক মিনিট অফার প্রোভাইড করে। এজন্য আমাদের মিনিট ব্যালেন্স চেক করার প্রয়োজন হয়। তেমনই কতগুলো এসএমএস বাকি আছে তা জানতে প্রয়োজন এসএমএস ব্যালেন্স চেক করা। নিম্নের টেবিল এর মাধ্যমে এর মাধ্যমে আমরা খুব সহজে সবগুলোর এ্যানসার পেয়ে যাব।

  টেলিটক    কোড 
টেলিটক ব্যালেন্স চেক*152#
টেলিটক ইন্টারনেট ব্যালেন্স চেক*152#
টেলিটক মিনিট ব্যালেন্স চেক*152#
টেলিটক এসএমএস ব্যালেন্স চেক*152#

টেলিটক নাম্বার যেমন হয়ে থাকে:

+৮৮০ ১৫………..
উদাহরণস্বরুপ +৮৮ ০১৫ ০০৪২৭৭২৫
এখানে +৮৮০ বাংলাদেশের আন্তর্জাতিক কোড। ১৫ হল টেলিটকের গ্রাহকদের জন্য সরকারের নির্ধারিত কোড।

টেলিটক এমবি চেক করার কোড-টেলিটক এমবি চেক

ব্লগিং করে টাকা আয় এর বিস্তারিত এক পোষ্টে

ঘরে বসে আয় করুন ১৫০০০ ২০০০০ টাকা প্রতি মাসে

টাকা ইনকাম করার সহজ উপায় বাংলাদেশে ২০২২

টেলিটক সিম এর প্রয়োজনীয়তা:

টেলিটক সিম খুবই গুরুত্বপূর্ণ। ক্রমেই এর ব্যবহার সংখ্যা বাড়ছে। প্রথমত বলতে গেলে, টেলিটক সিম সরকারি সিম। সুতরাং সরকারের বিভিন্ন কর্মকাণ্ডের জন্য ব্যবহার করা প্রয়োজন। যেমন বিভিন্ন বোর্ড পরীক্ষার ফলাফল জানতে টেলিটক সিম প্রয়োজন হয়। আবার খাতা পুন নিরীক্ষণ এর আবেদনের জন্য টেলিটক সিম প্রয়োজন হয়। শুধু তাই নয় সরকারের বিভিন্ন চাকরির বিজ্ঞপ্তি তে আবেদন করতে তেলেটক সিম প্রয়োজন হয়। এছাড়াও বর্তমানে টেলিটক সিমের প্রয়োজনীয়তা বৃদ্ধি পাচ্ছে।

সুপ্রিয় আশা করি আপনারা সকলে টেলিটক ব্যালেন্স চেক উপায় জানতে পেরেছেন। আজকের এই পোস্টের মাধ্যমে আলোচনা করেছি যতটা সম্ভব আপনাদের সহজ করে বুঝাতে। যেকোনো ধরনের তথ্য পেতে বিশেষ করে বিভিন্ন অপারেটর, টেকনোলজি নিউজ ইত্যাদি আমাদের সাথেই থাকুন। আপনাদের যেকোনো মন্তব্য আমাদের জানান।

Leave a Comment